সৈয়দপুরে গাছে গাছে ভরে গেছে সজনে ডাটা পুষ্টিগুন সমৃদ্ধ সজনে ডাটায় চাহিদাও প্রচুর

 সৈয়দপুর (নীলফামারী) প্রতিনিধি

নীলফামারীর সৈয়দপুরের হাটবাজারে ভরে গেছে গ্রীষ্মকালীন সবজি সজনে ডাঁটায়। আবহাওয়া অনুকুলে থাকায় এবং প্রাকৃতিক কোনো দুর্যোগ না হওয়ায় গত বছরের চেয়ে এবার সজনে ডাঁটার উৎপাদন ব্যাপক হারে বৃদ্ধি পেয়েছে। বর্তমানে হাটবাজারে এর দামও বেশি। অন্যান্য বছরের তুলনায় এবার গাছে গাছে প্রচুর সজনে ডাঁটা ধরায় স্থানীয় হাটবাজারে প্রচুর আমদানি হচ্ছে। শহর থেকে গ্রাম পর্যন্ত ঘরের আনাচে কানাচে, রাস্তার পাশে প্রতিটি গাছে ঝুঁলছে সজিনা। সজিনা গাছ অতি পরিচিত একটি নাম।

স্থানীয় হাটবাজারগুলোতে মুখরোচক ও পুষ্টিগুণে ভরপুর সজনে ডাঁটার চাহিদাও রয়েছে ব্যাপক। এখানকার সজনে ডাঁটা বর্তমানে দেশের বিভিন্ন স্থানে রপ্তানি করা হচ্ছে। অন্যান্য সবজির চেয়ে সুস্বাদু ও পুষ্টিগুণে ভরপুর হওয়ায় সজনে যে কোনো বয়সের মানুষ খেতে ভালোবাসে। সজিনা গাছ গ্রাম বাংলার প্রতিটি মানুষের কাছে অতি পরিচিত একটি নাম। প্রতি বছর শীতের শেষে এই গাছ ফুলে ফলে ভরে যায়। সজিনার ডাঁটা খেতে অত্যন্ত সুস্বাদু ও রোগ প্রতিরোধক। তাই বছরের এই সময়টা এলে সকলেই অন্তত এক দিনের জন্য হলেও সজিনার ডাঁটার তরকারী খেতে ভুল করে না।
চিকিৎসকদের মতে ক্যালোরিয়াম, খনিজ লবণ ও আয়রনসহ প্রোটিনযুক্ত খাদ্য সজনে ডাঁটাতে পাওয়া যায়। এছাড়া ভিটামিন এ,বি ও সি সমৃদ্ধ সজনে ডাঁটা মানব দেহের জন্য অত্যন্ত উপকারি। প্রসূতি মায়েদের বিভিন্ন রোগ প্রতিরোধকারি ও ফলদায়ক বলে ঔষধি সবজি হিসেবে এর ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। এছাড়াও এই গাছের ছাল ও পাতা রক্ত আমাশয় প্রতিরোধে কার্যকর ভূমিকা রাখে বলে চিকিৎসকেরা জানায়।
উপজেলার কামারপুকুরের আব্দুল করিম জানান, আমার কয়েকটি সজনে গাছ রয়েছে। এতে বিনা পরিশ্রমে ও বিনা পুঁজিতে ভালো লাভ হয়েছে। বাজারের সজনে বিক্রেতা কামাল উদ্দিন জানান, বাজারে বর্তমানে প্রতি কেজি সজনে ৭০ টাকা থেকে ৮০ টাকা দরে খুচরা বিক্রি করা হচ্ছে। প্রথমে এর দাম চড়া থাকলেও ২-১ সপ্তাহের মধ্যে এর দাম কমে যাবে।
সৈয়দপুর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা শাহিনা বেগম জানান, সজনে ডাটা প্রধানত দুই প্রকার। এক প্রকার বছরে ১বার পাওয়া যায়। আর রাইখঞ্জন জাতের সজনে ডাটা বছরে দুই থেকে তিনবার বাজারে পাওয়া যায়। সজনে গাছ তৈরি করতে চারা রোপণ করতে হয় না। যে কোনো পতিত জমির পুকুর পাড় রাস্তা বা বাড়ির আঙ্গিনায় বা যে কোনো ফাঁকা জায়গায় গাছের ডাল পুঁতে রাখলেই অবহেলা অযত্নের মধ্যেই প্রাকৃতিকভাবে ধীরে ধীরে এর ডাল-পালা বেড়ে গাছ বড় হতে থাকে।
এমনকি ডাল পুঁতে রাখার পর একবছরের মধ্যেই ওই সব গাছে সজনে ডাটা ধরতে শুরু করে। বড় মাঝারি এক একটি গাছে ৫-১০ মণ পর্যন্ত সজনে পাওয়া যায়। বিনা পরিশ্রমে, বিনা খরচে অধিক লাভের আশায় অনেকেই সজনে চাষের জন্য আগ্রহী হয়ে উঠছে।