সিরাজগঞ্জের চলনবিলে বিনা চাষে রসুন চাষে ব্যস্ত কৃষক

সিরাজগঞ্জের চলনবিল এলাকার তাড়াশ উপজেলায় বন্যার পানি নেমে যাওয়ায় বিনা চাষে রসুন চাষ করছেন কৃষকরা

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি

সিরাজগঞ্জের চলনবিল এলাকার তাড়াশ উপজেলায় বন্যার পানি নেমে যাওয়ার সাথে সাথে শুরু হয়েছে বিনা চাষে রসুন চাষ। ফলে বিনা চাষে রসুন বীজ রোপণে ব্যস্ত সময় পার করছেন এই এলাকার কৃষকরা। চলনবিলের পানি নেমের যাওয়ার সাথে সাথে কার্তিক থেকে অগ্রহায়ণ মাস পর্যন্ত জমির নরম পলিমাটিতে হালচাষ ছাড়াই রসুন বীজ রোপণ করা হয়। তাড়াশ উপজেলার আটটি ইউনিয়নের মধ্যে মাগুড়াবিনোদ ও সগুনা ইউনিয়নের চর এলাকায় রসুন চাষ বেশি হয়।

তাড়াশ উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা গেছে, এ বছর চলনবিল এলাকায় প্রায় ৫১৭ হেক্টর জমিতে রসুন আবাদের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। স্থানীয় কৃষক সালাম, জুরান ও সোহরাব আলী জানিয়েছেন, এ বছর তাড়াশ উপজেলার সগুনা ইউনিয়নের চর-কুশাবাড়ি, বিন্নাবাড়ি, চরহামকুড়িয়া, বিলনান্দ, কুন্দইল, মাগুড়াবিনোদ ইউনিয়নের শ্যামপুর, বিল হামকুড়িয়া, নাদোসৈয়দপুরসহ বিভিন্ন এলাকার কৃষি জমিগুলোতে বোনা আমন ধান কাটার সাথে সাথেই শুরু হয়েছে বিনা চাষে রসুন চাষ। জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক মো. আবু হানিফ জানান, পানি নেমে যাওয়ার সাথে সাথে বিনা চাষে রসুন রোপণে কৃষকরা বেশি লাভবান হয়। এ রসুন চাষ শুধু চলনবিলন এলাকায় নয় শাহজাদপুর, চৌহালী ও সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলাও শুরু হয়েছে।