ভারতে বাড়ছে করোনার সংক্রমণ ও মৃত্যু, নাগপুরে ফের লকডাউন

 আন্তর্জাতিক ডেস্ক
করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বাড়ায় ভারতের মহারাষ্ট্রের নাগপুরে এক সপ্তাহের জন্য আবারও লকডাউন দেয়া হয়েছে। 

এদিকে, পহেলা মে’র মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের সব প্রাপ্ত বয়স্ককে করোনা ভ্যাকসিন নিশ্চিত করতে রাজ্যগুলোকে নির্দেশ দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন।  অন্যদিকে, অক্সফোর্ডের ভ্যাকসিন প্রয়োগ সাময়িকভাবে বন্ধ রেখেছে থাইল্যান্ড, ডেনমার্ক, নরওয়ে ও আইসল্যান্ড।

ভারতে গত নভেম্বর থেকে কমতে শুরু করেছিল করোনার সংক্রমণ। কিন্তু ফেব্রুয়ারির মাঝামাঝি আবারও বাড়তে থাকে সংক্রমণ ও মৃত্যু।

বৃহস্পতিবার এ বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ করোনা শনাক্ত রেকর্ড করা হয়েছে ২২ হাজার ৮শ ৫৪ জন। ২০২১ সালে এ নিয়ে তৃতীয়বার নতুন সংক্রমণ ২০ হাজারের গণ্ডি ছাড়ালো।

সংক্রমণের হার বেশি পাওয়া যাচ্ছে মহারাষ্ট্রসহ ৬টি রাজ্যে। সংক্রমণ বাড়ায় মহারাষ্ট্রের নাগপুরে ১৫ই মার্চ থেকে সপ্তাহব্যাপী আবারও নতুন করে লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। পশ্চিমবঙ্গের কলকাতার হাসপাতালগুলোতে প্রতিদিনই বাড়ছে কোভিড রোগীর সংখ্যা।

করোনাভাইরাসের ভয়াবহতার নতুন রূপ দেখছে ব্রাজিলও। দেশটিতে দ্বিতীয় দিনের মতো মৃত্যুর সংখ্যা ২ হাজার ছাড়িয়েছে। ব্রাজিলের ৮০ থেকে ৯০ শতাংশ আইসিইউ এখন রোগী দিয়ে পূর্ণ। অন্যদিকে দুই সপ্তাহে নতুন করে করোনা শনাক্ত না হওয়ায় শুক্রবার থেকে নিউজিল্যান্ডের অকল্যান্ডের সব বিধিনিষেধ তুলে নেয়া হয়েছে।

এদিকে আগামী ১লা মে’র মধ্যে সব প্রাপ্তবয়স্ক মার্কিনির জন্য ভ্যাকসিনের প্রাপ্যতা নিশ্চিত করতে রাজ্য সরকারগুলোকে নির্দেশ দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন।

প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেন, ‘একসাথে চেষ্টা করলে, ৪ঠা জুলাই পরিবার, বন্ধুবান্ধব সবাই মিলে ঘরের বাইরে স্বাধীনতা দিবস উদযাপন করতে পারবো।  এমন একটি ভালো সুযোগ আছে। শুধু তাই নয়, এদিন আমরা একই সাথে ভাইরাসমুক্ত দিবসও পালন করবো।’

এদিকে, অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার ভ্যাকসিনে রক্ত জমাট বেঁধে মৃত্যুর আশঙ্কায় ভ্যাকসিনটির প্রয়োগ সাময়িকভাবে বন্ধ রেখেছে থাইল্যান্ড, ডেনমার্ক, নরওয়ে ও আইসল্যান্ড। তবে অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা গ্রহণের ফলে রক্ত জমাট বাঁধার কোনো প্রমাণ মেলেনি বলেছে ইউরোপীয় ইউনিয়নের ওষুধ নিয়ন্ত্রক সংস্থা।