বিয়ানীবাজারে যুবতীকে কুপিয়ে হত্যা, ঘাতক পলাতক

বিয়ানীবাজার প্রতিনিধি

বিয়ানীবাজারের পল্লীতে যুবতীকে কুপিয়ে খুন করে পালিয়েছে ঘাতক। মঙ্গলবার সকাল ১০টার দিকে উপজেলার শেওলা ইউনিয়নের বালিঙ্গা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। সম্প্রতি ওই যুবতীর বিয়ের কথাবার্তা চূড়ান্ত হয়। ঘাতক নাজিম উদ্দিন অন্য এলাকার বাসিন্দা হলেও সে নিহত যুবতীর পাশের বাড়িতে বসবাস করে।
এলাকাবাসী জানান, ঘটনার সময় ঘাতক নাজিম উদ্দিন ওই যুবতীর বাড়িতে দিনমজুরের কাজ করতে যায়। এ সময় টেলিভিশন দেখতে থাকা নাজমিন আক্তার (১৮) কে ঝাপটে ধরে বটি দা দিয়ে গলায় কুপ মারে নাজিম। তাৎক্ষণিক ওই যুবতীর মৃত্যু হয়। ঘটনার পরই পালিয়ে যায় ঘাতক। তার বাড়ি মৌলভীবাজার জেলায় বড়লেখা উপজেলার নিজ-বাহাদুরপুর এলাকায়।
এদিকে নিহত যুবতীকে শিশুকাল থেকে নিজের মেয়ের মত লালনপালন করেন স্থানীয় ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি সামসুল হক চৌধুরী কস্তই মিয়া। তার বাড়িও প্রতিবেশী জকিগঞ্জ উপজেলায়। ইউপি সদস্য আবুল কালাম খান শেখ জানান, নিহত যুবতীকে শিশুকালে এনে লালন পালন করেন সামসুল হক চৌধুরী। ঘাতক ছেলের পক্ষ থেকে হয়তো একতরফা ওই মেয়েকে প্রেম নিবেদন করা হতে পারে। তা প্রত্যাখ্যান হওয়ায় ক্ষোভের বশবর্তী হয়ে এমন ঘটনা ঘটিয়ে পালিয়ে যায় ঘাতক।
বিয়ানীবাজার থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) হিল্লোল রায় ইত্তেহাদকে জানান, পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি করেছে। ঘাতককে গ্রেফতারে অভিযান চলছে।