বঙ্গোপসাগরে সাগরে ডুবে যাওয়া ট্রলারের ২১ জেলে উদ্ধার ॥ নিখোঁজ ৩ জেলে

বঙ্গোপসাগর থেকে উদ্ধার হওয়া ২১ জেলে

বরগুনা প্রতিনিধি

৬৫ দিনের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে গভীর সমুদ্রে মাছ ধরতে গিয়ে এফবি বিলকিস নামে একটি মাছ ধরা ট্রলারডুবির ঘটনায় ২৪ জেলের ২১ জনকে উদ্ধার করা হয়েছে। নিখোঁজ রয়েছে তিন জেলে। তারা হলেন নোয়াখালীর হাতিয়া সন্দীপের আলমগীর হোসেন (৩৫) ও রিয়াদ (২০) এবং পাথারঘাটা উপজেলার কালমেঘা গ্রামের কালাম মিস্ত্রি (৪০)। নিখোঁজ জেলেদের উদ্ধার অভিযান অব্যাহত রেখেছে পাথরঘাটা কোস্টগার্ড। শনিবার (১৯-৬-২১) বিকেল ৪ টা পর্যন্ত নিখোঁজ জেলেদের কোন সন্ধান পাওয়া যায়নি বলে জানিয়েছে কোস্টগার্ড।
শুক্রবার (১৮ জুন) সকাল ৬টার দিকে বরগুনার পাথরঘাটা থেকে ২০০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে গভীর সমুদ্রে এ ঘটনা ঘটে।
বরগুনা জেলা মৎস্যজীবী ট্রলার মালিক সমিতির সভাপতি মো. গোলাম মোস্তফা চৌধুরী বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, পাথরঘাটা থেকে ২০০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিম বঙ্গোপসাগরে এফবি বিলকিস নামের একটি ট্রলারে জেলেরা মাছ ধরছিল। এ সময় ঝড় হাওয়ার কারণে সমুদ্র উত্তাল থাকায় ট্রলারটি ২৪ জেলেসহ ডুবে যায়।
পরে ট্রলারডুবির এ ঘটনার চার ঘণ্টা পর শুক্রবার সকাল ১০টার দিকে ২৪ জেলের মধ্যে ২১ জেলেকে ভাসমান অবস্থায় আরেকটি ট্রলারের জেলেরা উদ্ধার করলেও তিন জেলে এখনও নিখোঁজ রয়েছেন। খবর পেয়ে ডুবে যাওয়া ট্রলার ও নিখোঁজ জেলেদের উদ্ধারের জন্য শুক্রবার দুপুরে এফবি জিসান নামের একটি ট্রলার নিয়ে ঘটনাস্থলের উদ্দেশ্য রওনা দিয়ে যায় কোস্টগার্ডের সদস্যরা।
এ ব্যাপারে কোস্টগার্ডের পাথরঘাটা স্টেশনের কমান্ডার লেফটেন্যান্ট ফাহিম শাহরিয়ার বলেন, সাগরে ট্রলার ডুবে জেলে নিখোঁজ হওয়ার খবর পেয়ে আমাদের সদস্যরা শুক্রবার থেকেই উদ্ধার অভিযানে নেমেছেন। কিন্তু শনিবার বিকেল ৪ টা পর্যন্তও নিখোঁজ জেলেদের কোনো সন্ধান পাওয়া যায়নি।