বাড়ি প্রচ্ছদ নিহতদের পরিবারকে আর্থিক সহায়তা প্রশাসনের শিবগঞ্জে বজ্রপাত: ১৭ জন নিহতের ঘটনায় পরিদর্শনে...

নিহতদের পরিবারকে আর্থিক সহায়তা প্রশাসনের শিবগঞ্জে বজ্রপাত: ১৭ জন নিহতের ঘটনায় পরিদর্শনে প্রশাসন-জনপ্রতিনিধিরা

চাাঁপইনবাবগহ্ঝে বজ্রপাতে নিহত ১৭

চাঁপাইনবাবগঞ্জ ও শিবগঞ্জ প্রতিনিধি

চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জে ইতিহাসের স্মরণীয় বজ্রপাতে ৫জন মহিলাসহ ১৭জনের নিহতের ঘটনায় জেলাজুড়ে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। নিহতের বাড়িতে বাড়িতে চলছে শোকের মাতম। যেনো পুরো আকাশ ভেঙে পড়েছে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলায়। জাতীয় শোকের মাসে বজ্রপাতে ১৭ জনের নিহতের ঘটনায় শোকের পাল্লা যেনো আরো ভারি হয়ে গেলো। এই দূর্ঘটনায় হতভম্ব হয়েছেন জেলার সর্বস্থরের মানুষ। আরো হতভম্ব হয়েছেন জেলা ও উপজেলা প্রশাসনগণ এবং জনপ্রতিনিধিগণ।
বুধবার দুপুর পৌনে ১২টার দিকে শিবগঞ্জ উপজেলার পাঁকা ইউনিয়নের পদ্ম নদীর দক্ষিণপাঁকা ঘাটে এই ঘটনা ঘটে।
নিহতদের মধ্যে তাৎক্ষণিক একজনের নাম পরিচয় পাওয়া গেলেও বাঁকি ১৬জনের নাম পরিচয় পাওয়া যায়নি বলে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন পাঁকা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. জালাল উদ্দিন করেন।
তিনি আরো জানান, চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার সুন্দরপুর ইউনিয়নের নারায়নপুর গ্রামের ২০/২৫জন মানুষ নৌকাযোগে শিবগঞ্জ উপজেলার পাঁকা ইউনিয়নের দক্ষিণপাঁকা তেররশিয়া গ্রামের মো. হোসেন আলীর মেয়ের বৌ ভাতের অনুষ্ঠানে আসছিলেন। পথে বৃষ্টি শুরু হলে দক্ষিণপাঁকা ঘাট এলাকায় নৌকা থেকে নেমে ঘাটের ঘরে আশ্রয় নেন। এসময় বজ্রপাত ঘটলে ঘাটের ঘরের মধ্যে থাকা দক্ষিণপাঁকা তেররশিয়া গ্রামের মফিজ উদ্দিনের ছেলে রফিক উদ্দিন(৪২) ও সুন্দরপুর ইউনিয়নের নারায়নপুর গ্রামের নাম না জানা ১৬জনসহ ১৭জন মারা যান।
নিহতরা হলেন, দক্ষিণপাঁকা তের রশিয়া গ্রামের মহবুল ইসলামের ছেলে রফিকুল ইসলাম (৬০), চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার মহারাজনগর-ডাইলপাড়ার মৃত সৈয়ব আলীর ছেলে তবজুল আলী(৭০), তাঁর স্ত্রী জামিলা বেগম(৫৮), ছেলে সাদল আলী(৩৫), একই এলাকার জামাল উদ্দিনের মেয়ে লেচন(৫০), সূর্য নারায়নপুর গ্রামের ধুনু মিয়ার ছেলে সজীব আলী(২২), কালুর ছেলে আলম(৪৫), মোস্তফার ছেলে পাচু(৪০), ফাটাপাড়ার সাদেকুল ইসলামের স্ত্রী টকি বেগম(৩০), চরবাগঙাডা গোঠাপাড়ার সাত্তার আলীর ছেলে সোহবুল(৩০), চর সূর্য নারায়নপুরের টিপুর স্ত্রী বেলি বেগম(৩২), মহারাজনগর ডাইলপাড়ার রফিকুল ইসলামের ছেলে বাবুল(২৬), সূর্য নারায়নপুরের বাবু আলীর স্ত্রী মোসাঃ মৌসুমী বেগম(২৫), বাবু ডাইং এলাকার মহফুলের ছেলে টিপু সুলতান (৪৫), মহারাজনগরের বাদল আলীর ছেলে বাবু(২০) ও সুন্দরপুরের সেরাজুল ইসলামের ছেলে আসিকুল ইসলাম (২০)।
বুধবার দুপুর ১২দিকে এই দূর্ঘটনার সংবাদ ছড়িয়ে পড়লে ঘটনাস্থলে ছুটে যান স্থানীয় সংসদ সদস্য ডা. সামিল উদ্দিন আহমেদ শিমুল, জেলা প্রশাসক মো. মুঞ্জুরুল হাফিজ, পুলিশ সুপার এএইচএম আব্দুর রাকিব, শিবগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সৈয়দ নজরুল ইসলাম, নির্বাহী অফিসার মো. সাকিব আল রাব্বী, অফিসার ইনচার্জ মো. ফরিদ হোসেন ও উপজেলা প্রকল্প কর্মকর্তা মো. আরিফুল ইসলামসহ জেলা-উপজেলা প্রশাসন ও জনপ্রতিনিধিগণ।
নিহতের বাড়িতে বাড়িতে গিয়ে জানিয়েছেন সমবেদনা ও শোক প্রকাশ করেছেন এবং নিহতদের ১৭টি পরিবারকে ২৫ হাজার টাকা করে এবং আহতের ৫ হাজার টাকা করে আর্থিক সহায়তা প্রদান করেছেন।
এব্যাপারে স্থানীয় সংসদ সদস্য ডা. সামিল উদ্দিন আহদেম শিমুল, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সৈয়দ নজরুল ইসলাম, উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাকিব আল রাব্বী, শিবগঞ্জ থানা অফিসার ইনচার্জ মো. ফরিদ হোসেন, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা আরিফুল ইসলাম বজ্রপাতে ১৭জনের নিহতের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, বুধবার দুপুরে পাঁকা ইউনিয়নের পদ্মা নদীর দক্ষিণপাঁকা ঘাটে বজ্রপাতের দূর্ঘটনার কবলিত একালা পরিদর্শন করেছি এবং শিবগঞ্জের নিহত রফিকুল ইসলামের পরিবারকে শিবগঞ্জ উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ২৫ হাজার টাকা আর্থিক সহায়তা দেয়া হয়েছে।
তাঁরা আরো বলেন, চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার এই ঘটনায় নিহত ১৬ জনের পরিবারকে সদর উপজেলা প্রশাসন পক্ষ থেকে দেয়া হয়েছে।