তানভীর তাণ্ডবে ইনিংস ব্যবধানে জয় বাংলাদেশের

স্পোর্টস ডেস্ক

সংক্ষিপ্ত স্কোর- আয়ারল্যান্ড এ দল ১ম ইনিংস: ১৫১/১০

বাংলাদেশ ইমার্জিং দল ১ম ইনিংস: ৩১৩/১০

আয়ারল্যান্ড এ দল ২য় ইনিংস: ৭৪.৩ ওভারে ১৩৯/১০ (টেক্টর ৫৫, ক্যাম্পার ২২, টাকার ৫, অ্যাডায়ার ১৪, ডেলানি ৮; ইবাদত ১/২৭, তানভির ৮/৫১, সাইফ ১/১৫)।

ফল : বাংলাদেশ ইমার্জিং দল ইনিংস ও ২৩ রানে জয়ী

এ দলের আদলে ইমার্জিং দল। বিশ্বকাপজয়ী ক্রিকেটারদের ছড়াছড়ি যেখানে। বাকি যারা আছেন, তারাও জাতীয় দল বা এর আশেপাশের। এত এত পরিচিত মুখের ভিড়ে, কেবল তানভীরই তুলনামূলক অচেনা। ফার্স্ট ক্লাস, লিস্ট এ, টি-টোয়েন্টি খেলেছেন সবই, তবে সেভাবে আলো ছড়াতে পারেননি। ছড়ালেন চট্টগ্রামে, আয়ারল্যান্ড উলভসের বিপক্ষে। দুই ইনিংসে নিলেন ১৩ উইকেট, তাতে বাংলাদেশ ইমার্জিং দল জিতল ইনিংস ও ২৩ রানে। 

জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে টস জিতে প্রথম ইনিংসে ব্যাট করতে নেমেছিল আয়ারল্যান্ড। প্রথম ইনিংসে তানভীরের পাঁচ উইকেটের পর সফরকারীরা গুটিয়ে গিয়েছিল ১৫১ রানে। ওই ইনিংসে আয়ারল্যান্ডের সবচেয়ে বেশি ৩৯ রান এসেছিল কুটিশ ক্যাম্পারের ব্যাট থেকে।

নিজেদের প্রথম ইনিংসে খেলতে নেমে বাংলাদেশ চড়েছিল ৩১৩ রানের পাহাড়ে। দুই ইনিংস মিলিয়েও আয়ার‌ল্যান্ড এই রান করতে পারেনি। ওই ইনিংসে বাংলাদেশের আক্ষেপ ছিল একটাই। আট রানের জন্য সেঞ্চুরি মিস করেন ইয়াসির আলি রাব্বি।

নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে খেলতে নেমেও তানভীরের তোপের মুখে পড়ে আয়ার‌ল্যান্ড। দ্বিতীয় দিনশেষেই ৩৫ রান তুলতেই হারিয়ে ফেলেছিল চার উইকেট। তৃতীয় দিনে আইরিশদের গুটিয়ে দিতে খুব বেশি সময় নেয়নি বাংলাদেশ ইমার্জিং দল।

১৩৯ রানেই থামে সফরকারীদের ইনিংস। অধিনায়ক হেরি ট্যাক্টরই খানিকটা প্রতিরোধ করেন। ১৩৭ বলে ৫৫ রান করে তানভীরের শিকার হন তিনি। দ্বিতীয় ইনিংসে ২৮ ওভার ৩ বল হাত ঘুরিয়ে ৫১ রান দিয়ে আট উইকেট তুলে নেন তানভীর।