গঙ্গাচড়ায় তিস্তায় বিলীন হচ্ছে বৈদ্যুতিক খুঁটি হুমকিতে ২০-২৫টি

রংপুরের গঙ্গাচড়া কোলকোন্দ ইউনিয়নের বিনবিনা এলাকার এসব খুঁটি যে কোন সময় ভেঙ্গে পড়তে পারে

গঙ্গাচড়া (রংপুর) প্রতিনিধি

গঙ্গাচড়ায় তিস্তায় বিলীন হচ্ছে চরাঞ্চলের বৈদ্যুতিক খুঁটি। এতে ভেঙ্গে পড়েছে বিদ্যুৎ ব্যবস্থা। ক্ষতি হচ্ছে সরকারের লাখ লাখ টাকা। সরেজমিনে জানা যায়, রংপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২ এর আওতায় এ বছর শতভাগ বিদ্যুতায়নের জন্য তিস্তার চরাঞ্চলে বৈদ্যুতিক খুঁটি স্থাপন করা হয়। কিন্তু সাম্প্রতিক সময়ে তিস্তার পানি বৃদ্ধি পেলে কোলকোন্দ ইউনিয়নের বিনবিনা এলাকায় ভাঙ্গনে বৈদ্যুতিক তারসহ খুঁটি তিস্তায় বিলীন হয়ে যাচ্ছে।
স্থানীয় বাসিন্দারা জানায়, নদী শাসন না করে অপরিকল্পিতভাবে এসব খুঁটি স্থাপন করায় তিস্তার ভাঙনে খুঁটি বিলীন হয়ে সরকারের অনেক ক্ষতি হচ্ছে। বিদ্যুৎ কর্তৃপক্ষ বিষয়টি অবগত থাকলেও খুঁটি সরানোর ব্যাপারে কোন প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহন করেননি।
স্থানীয় ইউপি সদস্য নুরুন্নবী ভুট্টু বলেন, আর একশ ফুট ভাঙলে ১১ হাজার ভোল্টেজের বৈদ্যুতিক লাইনের ২০-২৫টি খুঁটি তিস্তায় চলে যাবে। এর আগে প্রায় ১০০ খুঁটি তিস্তায় বিলীন হয়ে গেছে। রংপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২ এর এজিএম প্রমোদ কুমার দে বলেন, খুঁটি, তার, ইন্সুলিন এবং অন্যান্য যন্ত্রাংশ মিলে প্রতিটি খুঁটির দাম পড়ে ৬৫ হাজার টাকা।
রংপুর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২ এর গঙ্গাচড়াস্থ যোনাল অফিসের ডিজিএম আব্দুল জলিল বলেন, শতভাগ বিদ্যুৎ সরবরাহ কার্যক্রম চলমান রাখতে চরেও বিদ্যুৎলাইন দেওয়া হয়েছে। লোকবল কম থাকায় বর্তমানে চর এলাকায় বিদ্যুৎ লাইন টেকানো মুস্কিল। বিষয়টি উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়েছে।