অশ্বিনকে ‘বাতিলের খাতায়’ ফেলে দিলেন কোহলি

সাদা বলে অশ্বিনের সুযোগ দেখেন না কোহলি
স্পোর্টস ডেস্ক

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সদ্য শেষ হওয়া টেস্ট সিরিজে ঘূর্ণি জাদুতে হলেন সিরিজসেরা, সেই রবিচন্দ্রন অশ্বিনকে কিনা বাতিলের খাতায় ফেলছেন বিরাট কোহলি! একটু দম নিন। লাল বলের ক্রিকেটে ভারতের ‘মেইন’ স্পিনার অশ্বিন, এতে কোনও সন্দেহ নেই, এখানে বলা হচ্ছে সাদা বলের ক্রিকেটের কথা। ২০১৭ সাল থেকে সাদা বলের ক্রিকেটের বাইরে থাকা অশ্বিনের হয়তো রঙিন জার্সির অধ্যায় শেষই হয়ে গেছে। অন্তত টি-টোয়েন্টি স্কোয়াডে যে আর তার জায়গা হচ্ছে না, সেটা স্পষ্টই বলে দিয়েছেন কোহলি।

অশ্বিনের এই ‘পরিণতির’ কারণ তার মতোই আরেক স্পিনারের দলে থাকা। তিনি ওয়াশিংটন সুন্দর। বয়স কম, উজ্জ্বল ভবিষ্যতের ইঙ্গিত, সব মিলিয়ে ‘লগ্নি’ সুন্দরের ওপরই করতে চাইছে ভারত ও কোহলি। ভারতীয় অধিনায়ক জানিয়েছেন, সুন্দরের ভয়ঙ্কর ‘অসুন্দর’ মৌসুম না গেলে তিনিই থাকবেন টি-টোয়েন্টিতে ভারতের প্রথম পছন্দের অফ স্পিনার।

২০১৭ সালে পাকিস্তানের কাছে চ্যাম্পিয়নস ট্রফি ফাইনালের হারের পর থেকে ৫০ ওভারের ক্রিকেটে ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্ট খেলিয়ে আসছে দুই রিস্ট স্পিনার যুজবেন্দ্র চাহাল ও কুলদীপ যাদবকে। তখন থেকেই সাদা বলের ক্রিকেটে উপেক্ষিত অশ্বিন। আর ওই বছরই আইপিএলে অভিষেক হয় সুন্দরের এবং পরবর্তীতে হয়ে ওঠেন ভারতের টি-টোয়েন্টি দলের প্রথম পছন্দের অফ স্পিনার।

যেহেতু অশ্বিন ও সুন্দরের স্কিল একই রকম, তাই টি-টোয়েন্টি দলে অশ্বিনের সুযোগ দেখেন না কোহলি। ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে ভারতীয় অধিনায়ক বলেছেন, ‘ওয়াশিংটন আমাদের জন্য সত্যি দারুণ করছে। সুতরাং, আপনি একই ধরনের দুই খেলোয়াড়কে একটি স্কোয়াডে রাখতে পারবেন না। সুন্দরের খুবই বাজে মৌসুম না গেলে, সিদ্ধান্ত তার পক্ষেই থাকবে।’

সুন্দর থাকার পরও অশ্বিনকে খেলানোর যুক্তি দেখেন না কোহলি। তাই এই ধরনের প্রশ্ন ওঠার আগে ব্যাখ্যা সহজেই বোঝা উচিত বলে মনে করেন ভারতীয় অধিনায়ক, ‘এই ধরনের প্রশ্নে আসলে যুক্তি থাকা উচিত। যখন ওয়াশিংটনের মতো একজন আপনার দলে কাজ করে দিচ্ছে, তখন আপনি অশ্বিনকে যোগ করবেন কোথায়? প্রশ্ন করা খুব সহজ, তবে এটার যৌক্তিক ব্যাখ্যাও থাকা উচিত।’